শীর্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি ) প্রতিপক্ষের মাঠে  ১-০ গোলে বার্নলিকে হারিয়ে লিভারপুলকে টপকে প্রিমিয়ার লিগে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। টানা তৃতীয় জয় প্রতিযোগিতার সফলতম দলটির এটি। একের পর এক আক্রমণ করেও মিলছিল না জালের দেখা। শঙ্কা জেগেছিল পয়েন্ট হারানোর। দ্বিতীয়ার্ধে দারুণ এক গোলে ব্যবধান গড়ে দিলেন পল পগবা।
প্রথম সুযোগ পায় ১৭ মিনিটে শুরু থেকে বল দখলে এগিয়ে থাকা ইউনাইটেড। বাঁ দিক থেকে লুক শর নিচু ক্রস ডি-বক্সে খুঁজে পায় ব্রুনো ফের্নান্দেসকে। পর্তুগিজ মিডফিল্ডার গোলরক্ষক নিক পোপ বরাবর শট নেন এই। ১৯ মিনিট পর আরেকটি সুযোগ পায় তারা। ফের্নান্দেসের ক্রসে ডি-বক্সে অঁতনি মার্সিয়ালের ওভারহেড কিকে বল লাগে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের গায়ে। একটু পর নেমানিয়া মাতিচের থ্রু বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে উড়িয়ে মারেন মার্সিয়াল।
২২ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগ পায় বার্লিন। ডি-বক্সে ক্রিস উডের শট ইউনাইটেডের ডিফেন্ডার এরিক বেইলির গায়ে লেগে ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়। ৩৬ মিনিটে সতীর্থের ক্রসে কাছ থেকে হেডে জালে বল পাঠিয়েছিলেন হ্যারি ম্যাগুইয়ার। তবে লাফিয়ে হেড নেওয়ার সময় তিনি বার্নলির এক ডিফেন্ডারের পিঠে হাঁটু দিয়ে আঘাত করায় ফাউলের বাঁশি বাজায় রেফারি। ইউনাইটেড বিরতির আগে এগিয়ে যেতে পারতো। ডি-বক্সের অনেকটা বাইরে থেকে মার্সিয়ালের ডান পায়ের জোরালো শটে লাফিয়ে ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল পাঠান গোলরক্ষক পোপ। এদিনসন কাভানি দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভালো সুযোগ নষ্ট করেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা। ফের্নান্দেসের পাসে ছয় গজ বক্সের সামনে থেকে দুর্বল শট নেন উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার।

অবশেষে ৭১ মিনিটে গোলের দেখা পায় দলকে এগিয়ে নেন পগবা। ডান দিক থেকে মার্কাস র‍্যাশফোর্ডের ক্রসে ডি-বক্সে দারুণ ভলিতে ঠিকানা খুঁজে নেন এই ফরাসি মিডফিল্ডার। বল বার্নলির ম্যাট লোটোনের পায়ে লেগে জালে জড়ায়।শেষ দিকে সমতায় ফেরার দুটি ভালো সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি বার্নলি। যোগ করা সময়ে গোলরক্ষককে একা পেয়েও ব্যবধান বাড়াতে পারেননি মার্সিয়াল। ১৭ ম্যাচে ১১ জয় ও তিন ড্রয়ে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।