রোনালদোর নতুন রেকর্ড

হেল্লাস ভেরোনার বিপক্ষে ড্র করে লিগের দৌড়ে হোঁচট খেয়েছিল জুভেন্টাস। ভুল থেকে শিক্ষা নিতে বেশি দেরি করেননি রোনালদোরা।স্পেৎসিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে নিভতে থাকা লিগ স্বপ্নটাকে আরেকটু জ্বালিয়ে দিয়েছেন রোনালদোরা। গোল করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আলভারো মোরাতা ও ইতালিয়ান উইঙ্গার ফেদেরিকো কিয়েসা। আর গোল করে অনন্য একটা রেকর্ডে নামও লিখিয়েছেন রোনালদো। না জিতলে লিগ জয়ের দৌড়ে আরও বেশি পিছিয়ে যেতে হবে, এই চাপ নিয়েই গত রাতে মাঠে নেমেছিল জুভেন্টাস। রোনালদোর নতুন রেকর্ড ৪৮ ম্যাচে ৪৮ গোল ।

এই ম্যাচে দলকে ৪-৪-২ ছকে নামিয়েছেন আন্দ্রেয়া পিরলো। তবে শুরুতেই জুভেন্টাসের মনে ভয় ধরিয়ে দিয়েছিল স্পেৎসিয়া। লেফটব্যাক রিকার্দো মার্কিজ্জার একটা শট একটুর জন্য পোস্টের গা ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। ৯ মিনিটে কিয়েসা এক গোল করলেও অফসাইডের কারণে বাতিল হয়ে যায় সেটা। প্রথমার্ধে এরপর স্পেৎসিয়া বেশ কিছু সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি।

৩৭ মিনিটে কিয়েসার আরেকটা শট দুর্দান্তভাবে আটকে দেন স্পেৎসিয়া গোলকিপার ইভান প্রোভেদেল। ৪২ মিনিটে রোনালদো গোল প্রায় পেয়েই গিয়েছিলেন। কিন্তু বাঁ প্রান্ত থেকে আসা তাঁর শটটা পোস্টে লেগে ফিরে আসে। কোনোভাবেই কিছু হচ্ছে না দেখেই কি না, কোচ পিরলো ৬১ মিনিটে নামালেন উইঙ্গার ফেদেরিকো বের্নার্দেসকি ও স্ট্রাইকার আলভারো মোরাতাকে। সুফল পেতে বেশিক্ষণ লাগেনি জুভেন্টাসের। পরের মিনিটেই বের্নার্দেসকির সহায়তায় গোল করেন মোরাতা। ১০ মিনিট পর এবার গোটা ম্যাচ ভালো খেলার পুরস্কার পান কিয়েসা।

এবারও সহায়তাকারীর ভূমিকায় বের্নার্দেসকি। তাঁর কাছ থেকে বল নিয়ে ডি-বক্সের মধ্যে জোরে শট করেন কিয়েসা। প্রোভেদেল প্রথমবার আটকে দিলে বল আবার চলে যায় প্রায় শুয়ে পড়ে কিয়েসার পায়ে, এবার কিয়েসা আর ভুল করেননি। গোল করার পরেই মাঠ থেকে তাঁকে তুলে নেন পিরলো। ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে উরুগুইয়ান মিডফিল্ডার রদ্রিগো বেনতাঙ্কুরের পাসে গোল করেন রোনালদো। এই নিয়ে টানা ১২ মৌসুম অন্তত ২০ গোল করলেন এই পর্তুগিজ কিংবদন্তি, যে রেকর্ড আর কারও নেই! জুভেন্টাসের জার্সিতে ইতালিয়ান লিগে সর্বশেষ ৪৮ ম্যাচে ৪৮ গোল হলো তাঁর।