রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের জন্মদিন

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের জন্মদিন আজ শুক্রবার। ৭৮ বছরে পা রাখছেন তিনি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রিয়ভাজন  ১৯৪৪ সালের ১ জানুয়ারি হাওরবেষ্টিত মিঠামইন উপজেলার কামালপুর গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম নেন মো.আবদুল হামিদ। তার বাবার নাম হাজী মো. তায়েব উদ্দিন ও মাতা তমিজা বেগম। তিনি তিন ছেলে ও এক মেয়ের বাবা। তার বড় ছেলে রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক তারই নির্বাচনী এলাকা থেকে তৃতীয়বারের মতো এমপি নির্বাচিত হয়েছেন।তার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয় ১৯৫৯ সালে, ছাত্রলীগে যোগ দেয়ার মধ্য দিয়ে।

    প্রতিবছর জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতিকে শুভেচ্ছা জানাতেন, তবে  মহামারী করোনাভাইরাসের  কারণে এবার কোনো আনুষ্ঠানিকতা রাখা হয়নি। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন জানান , “স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য রাষ্ট্রপতির জন্মদিন উপলক্ষে কোনো আনুষ্ঠানিকতা পালন করা হবে না।
শুক্রবার জন্মদিনে নিজের পরিবারের সদস্য, বিশেষ করে নাতি-নাতনিদের সাথেই সময় কাটাবেন রাষ্ট্রপতি।
    ১৯৭০ সালের নির্বাচনে ময়মনসিংহ-১৮ আসন থেকে পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হন আবদুল হামিদ। এরপর স্বাধীন দেশে আরও ছয়বার তিনি সংসদে নিজের এলাকার মানুষের প্রতিনিধিত্ব করেন। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পরও তিনি গ্রেফতার হয়ে নির্যাতনের শিকার হন। ১৯৭৮ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত তিনি কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আবদুল হামিদ জাতীয় সংসদের স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন দুই দফা। ২০১৩ সালে রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর বঙ্গভবনের বাসিন্দা হন তিনি।