মশা মারতে ড্রোন

ঢাকার মশা নিয়ন্ত্রনে ড্রোন ব্যাবহার এর কথা চিন্তা করছে উত্তর সিটি করপোরেশন।এখন মূলত উৎপাত কিউলেক্স মশার। যার রাজত্ব খাল এবং লেকে। যেখানে চাইলেও পৌঁছাতে পারে না মশক কর্মী। তাই মশা নিয়ন্ত্রণেও আসে না। ডিএসসিসির স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, দেশেই তৈরি ড্রোনের মাধ্যমে ওষুধ ছিটানো হবে খাল ও লেকে। এতে কমবে শ্রম এবং সময়।

এই ড্রোনের প্রতি দুই মিনিটে ১০ লিটার মশার ওষুধ ছেটাতে সক্ষম আছে। এরই মধ্যে বনানীতে পরীক্ষামূলক কার্যক্রমও চালানো হয়েছে। ডিএনসিসির স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, রাজধানীর যেসব খাল এবং লেকে মশক কর্মী দিয়ে ওষুধ ছেটানো সম্ভব নয় সেসব স্থানে ব্যবহার হবে এই ড্রোন।

একটি ব্যাটারিতে ২৫ মিনিট আর দুটি ব্যাটারিতে ৫০ মিনিট উড়তে পারে এই ড্রোন। প্রতি মিনিটে ছেটাতে পারবে পাঁচ লিটার কীটনাশক। প্রাথমিকভাবে তৈরি এই ড্রোন ২০ লিটার পর্যন্ত বহন করতে সক্ষম। পরীক্ষায় সফলতা আসলে এই ড্রোন কিনবে ডিএনসিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.