প্রশ্ন কৃষি মন্ত্রীর চালের দাম কেন এত বাড়বে !

             ঢাকা- আমনের ভরা মৌসুমে বাজারে চালের দাম বাড়ার কোনো যৌক্তিকতা খুঁজে পাচ্ছেন না কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেছেন, চালের দাম কেন এত বাড়বে, তা আমার কাছে বোধগম্য নয়। ১-২ টাকা বাড়াও কিন্তু অনেক বাড়া। সেখানে ৩২-৩৩ টাকার মোটা চাল ৪৪ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কারণগুলো কি?রোববার ঢাকার কেআইবি মিলনায়তনে এক কর্মশালায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
       কৃষিমন্ত্রী আরও  বলেন, চলতি বছর দুই দফা বন্যার কারণে আউশ ও আমন ফলনের কিছু ক্ষতি হয়েছে। তবে উৎপাদনের যে পরিসংখ্যান সরকারের হাতে আছে, তাতে চালের এত ঘাটতি হওয়ার কোন কথা নয়।অথচ আজকে সরকারের ঘরে চাল নেই। আমাদের চাল আমদানি করতে হচ্ছে।আবার  কখনও তাও আমদানি করতে পারি না। কিছু ভুলভ্রান্তি আমাদের আছে। কিন্তু চালের দাম কেন এত বাড়বে?
        খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ২৩ ডিসেম্বরের যে তথ্য দেওয়া আছে, তাতে সরকারি গুদামগুলোতে মোট ৭ দশমিক ৪৬ লাখ মেট্রিক টন খাদ্যশস্য মজুদ আছে বলে জানিয়েছেন তার । এর মধ্যে গম ২ দশমিক ৪ লাখ মেট্রিক  টন এবং চাল ৫ দশমিক ৪২ লাখ মেট্রিক টন  । চালের মজুদের এই পরিমাণ গত বছরের তুলনায় প্রায় অর্ধেক বললেই চলে ।এ পরিস্থিতিতে চাল আমদানিতে জোর দিচ্ছে সরকার। এ মাসেই ভারত থেকে আরও ৫০ হাজার টন সেদ্ধ চাল আমদানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে।
   কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের আয়োজনে ‘উন্নত মানের ডাল, তেল ও মসলা বীজ উৎপাদন, সংরক্ষণ ও বিতরণ প্রকল্পের (তৃতীয় পর্যায়- প্রথম সংশোধিত)’ কর্মশালায় কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক  বলেন, আমাদের পেঁয়াজ বীজের সংকট রয়েছে। দুই বিলিয়ন ডলারের ভোজ্য তেল আমাদের আমদানি করতে হয়।। এ নিয়ে আমাদের  ভাবতে হবে।এসময় তিনি দেশে মুগডাল উৎপাদনের ‘ভালো সম্ভাবনা’ রয়েছে জানিয়ে ডাল, তেল, মসলার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের সবজির চাষও বাড়ানোর পরামর্শ দেন।