নিউ ইয়র্কের গির্জায় বন্দুকধারী নিহত পুলিশের গুলিতে

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক শহরের সেইন্ট জন দ্য ডিভাইন রোববার গির্জাটির সামনে একটি সংগীতানুষ্ঠান শেষ হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে পিস্তল হাতে এক ব্যক্তি ‘আমাকে হত্যা কর!’ বলে চিৎকার করে গুলি ছোড়ে, তখন পুলিশের পাল্টা গুলিতে সে নিহত হয় বলে জানিয়েছেন  ঘটনাস্থলে উপস্থিত বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ম্যানহাটনের আপার ওয়েস্ট সাইডের স্থানীয় সময় শেষ বিকালের এ ঘটনায় অন্য কেউ আঘাত পায়নি বলে জানিয়েছেন নিউ ইয়র্ক সিটি পুলিশ কমিশনার ডার্মোট শেই। গোলাগুলি চলাকালে অন্তত একটি গুলি তার মাথায় লাগে। দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।পুলিশ সন্দেহভাজনের দিকে মোট ১৫ রাউন্ড গুলি ছুড়েছিল বলে জানিয়েছেন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সন্দেহভাজনের একটি ব্যাগ ও দুটি আধাস্বয়ংক্রিয় পিস্তল উদ্ধার করেছেন। পুলিশ কমিশনার   জানিয়েছেন ওই ব্যাগটি থেকে একটি পেট্রলের ক্যান, রশি, তার, বেশ কয়েকটি ছুরি, একটি বাইবেল ও টেপ  উদ্ধার করেছেন। পুলিশ কমিশনার আরও জানান যে,অশুভ উদ্দেশ্যেই  এসব জিনিস ব্যাগে  রাখা হয়েছিল।কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য বিধির কারণে এবার গির্জার গায়কদলের বার্ষিক বড়দিনের ছুটির কনসার্টটি বাইরের সিঁড়িতে আয়োজন করা হয়। এ সঙ্গীতানুষ্ঠানে প্রায় ২০০ লোক উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের প্রায় শেষ হওয়ার  ১৫ মিনিট পর এখানেই গোলাগুলির ঘটনাটি ঘটে।  সিঁড়ির উপরে উদ্যত পিস্তল হাতে বন্দুকধারী যখন হাজির হন তখন সেখানে ১৫ জনের মতো লোক ছিল।

আড়ালে অবস্থান নেওয়া পুলিশ কর্মকর্তারা সন্দেহভাজনকে বেশ কয়েকবার তার অস্ত্র ফেলে দেওয়ার নির্দেশ দেয়, কিন্তু আদেশ উপেক্ষিত হওয়ার পর তারা গুলি করেন। গোলাগুলি কয়েক মিনিট স্থায়ী হয়েছিল বলে জানিয়েছেন রয়টার্সের ফটোসাংবাদিক।

ঘটনাস্থলে থাকা রয়টার্সের ফটোগ্রাফার  তিনি আরও  জানান, বন্দুকধারী এসেই চিৎকার করে একটি পিস্তল দিয়ে গুলি করে বলে ; ‘আমাকে হত্যা কর’, ‘আমাকে গুলি কর’।  এতে সেখানে দাঁড়ানোর লোকজন আতঙ্কিত হয়ে আড়ালে যাওয়ার জন্য   ছুটাছুটি শুরু করে।ঘটনাটি ঠিক কি কারনে হয়েছে তা এখন পর্যন্ত জানা যায় নি।