কেরানীগঞ্জে ১১ জুয়াড়ি গ্রেফতার

১৯ এপ্রিল দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে পৃথক অভিযান চালিয়ে ১১ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে র্যাব ১০ এর একটি দল। গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, রাত ১০টার দিকে বনগ্রাম এলাকায় অভিযান চালিয়ে জুয়ার আসর থেকে আট জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- আব্দুর রহিম (৪২), মাহাবুবুর রহমান (৫৫), মো. সোহরাব (৫৫), মোস্তফা শেখ (৩৫), মিনহাজ ফরাজি (৩৫), রমজান খান (২১), মো. আমান উল্লাহ (৪৬) ও বাবলু (৩৪)।
তাদের কাছে ১০৪ পিস জুয়া খেলার কার্ড, ৭ টি মোবাইল ফোন ও নগদ ৩ হাজার ২৩০ টাকা পাওয়া যায়। আরেকটি অভিযানে, রাত ১১ টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার চুনকুঠিয়া চৌরাস্তা এলাকায় অভিযান চালিয়ে জুয়া খেলা অবস্থায় তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন- আমজাদ হোসেন (৫১), আব্দুল হালিম (৫৫) ও নাজমুল হক (৪৭)। তাদের কাছ থেকে ৫২ পিস জুয়া খেলার কার্ড, ২টি মোবাইল ফোন ও নগদ ৩ হাজার ৮০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

রাজধানীর লালবাগে মা সহ পরিবারের পাঁচ সদস্যকে এসিডে ঝলসে দিয়েছেন আলী হোসেন।

লালবাগের কাশ্মিরীটোলা এলাকার একটি বাসায় মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) ভোর ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এসিডে দগ্ধরা হলেন আলী হোসেনের মা মোমেনা বেগম, বোন জামিলা আক্তার, দুই ভাই আনোয়ার হোসেন, ইকবাল হোসেন ও ভাগিনা সালেহীন (২০)। তারা এখন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের (ইনচার্জ) পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানান, আলী হোসেন একজন মাদকাসক্ত। এর পাশাপাশি তার মানসিক সমস্যাও রয়েছে। তিনি একটি ব্যটারির কারখানায় কাজ করেন। ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে পরিবারের সঙ্গে ঝগড়া লাগে আলী হোসেনের। এক পর্যায়ে তিনি ব্যাটারিতে ব্যবহৃত এসিডের পানি তার মাসহ পরিবারের পাঁচজনের শরীরে ছুঁড়ে মারেন। এতে তারা দগ্ধ হন। এরপর আলী হোসেন তার নিজের শরীরেও এসিড ঢেলে দেন। এরকম ঘটনা সমাজের জন্য ভয়ানক এবং লজ্জাজনক বলে মনে করছেন সবাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.