কেন আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত

কেন আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত :

আশির দশকের শেষ দিকে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যখন খন্ড খন্ড রাষ্ট সৃষ্টির প্রক্রিয়া চলছিল, তখন আজারবাইজান -আর্মেনিয়া ও নিজেদের স্বাধীন রাষ্ট হিসেবে ঘোষণা দেয়। তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের নেতারা নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলটি আজ়ারবাইজানের অংশ হিসেবে ঘোষণা করে।নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে সংঘাতের শুরু তখন থেকেই।চলতি বছরের জুলাইয়ে এই সংঘাতের মাত্রা আর তীব্র থেকে তীব্রতর হয়।এই বিরোধ নিরসনে ১৯৯৪ সালে দুই দেশের পক্ষ থেকে অস্ত্রবিরতির ঘোষণা আসে। যুদ্ধ বিরতির পূর্বে চলা এই সংঘাতে প্রাণহারায় অন্তত ৩০ হাজার মানুষ। সংঘর্ষের পর আর্মেনিয়ার মদতে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলে কতৃত্ব স্থাপন  করে আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা।

 

যুদ্ধ বিরতির কথা থাকলেও নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সৈন্যদের মধ্যে তিনদশকে অন্তত ১৫ বার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ২০১৬ সালে ঐ অঞ্চলটিতে সংঘর্ষে নিহত হয়েছিল কমপক্ষে ১১০ জন।

 

আন্তর্জাতিক আইনে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলটি আজারবাইজানের অংশ হিসেবে ধরা হয়। অঞ্চলটির আয়তন প্রায় চার হাজার চারশত বর্গকিলোমিটার। পাহাড় ও বনাঞ্চল ঘেরা দুর্গম এই অঞ্চলটিতে প্রায় দেড় লাখ মানুষ বসবাস করে। তাদের বেশিরভাগই আর্মেনীয়ান জনগোষ্ঠী। বিশাল এ জনগোষ্ঠীর ভরণপোষণ করে আর্মেনীয় সরকার এবং বিদেশে অবস্থানরত আর্মেনীয় বংশভূত বিভিন্ন নাগরিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.