এবার মেসি পেলের রেকর্ড নিজের করে নিলেন | সবচেয়ে বেশি গোলের মালিক মেসি

ফুটবলের কোনো রেকর্ডেই একাধিপত্য থাকে না, সেটা আরও একবার প্রমাণ করলেন আর্জেন্টিনা ও বার্সা সেনসেশন লিওনেল মেসি। এবার ছুঁয়ে দিলেন ‘কালো মানিক’ খ্যাত সর্বকালের অন্যতম সেরা পেলেকে। এক ক্লাবের হয়ে গড়লেন যৌথভাবে ৬৪৩ গোল করার রেকর্ড। এরপর বার্সেলোনা অধিনায়ককে অভিনন্দন জানাতে ভুলেননি ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার। লা লিগায় মঙ্গলবার রাতে রিয়াল ভায়াদোলিদের মাঠে ৩-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি সময়ে রেকর্ড গড়া গোলটি করেন ৩৩ বছর বয়সী মেসি। যা স্প্যানিশ ক্লাব বার্সার জার্সিতে তার ৬৪৪তম গোল। সাবেক তারকা পেলেকে ছাপিয়ে চূড়ায় পৌঁছাতে তাকে খেলতে হলো ৭৪৯ ম্যাচ।

ম্যাচের ৬৫তম মিনিটে তরুণ উইঙ্গার পেদ্রির ব্যাক হিল থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন মেসি। এরপর বাঁ পায়ের নিখুঁত শটে জাল খুঁজে নেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী খেলোয়াড়। নিজ দেশ ব্রাজিলের ক্লাব সান্তোসের হয়ে ৬৪৩ গোল করেছিলেন তিনটি বিশ্বকাপ জেতা পেলে। তার লেগেছিল ১৯ মৌসুম। তাকে টপকে বার্সেলোনার হয়ে মেসি নতুন কীর্তি গড়লেন ১৭ মৌসুমেই। লিগের আগের ম্যাচে পেলের রেকর্ড স্পর্শ করেছিলেন মেসি। সেদিন অবশ্য ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছিল বার্সা। তিন দিনের ব্যবধানে ভায়াদোলিদের বিপক্ষে নতুন কীর্তিতে নাম লেখানো হলো তার।

তাকে অভিনন্দন জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পেলে লিখেছেন, অভিনন্দন মেসি। কোনো কিছুর প্রতি ভালোবাসা হৃদয়কে পরিপূর্ণ করে তুললে তা এড়িয়ে চলা বা সে পথ বদলানো অনেক কঠিন। যেখানে নিজ বাড়ির মতো অনুভূতি পাওয়া যায়, সেখানকার মতো আপন অন্য কিছু হতে পারে না। ওদিকে ম্যাচ শেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সটাগ্রামে মেসি লিখেছেন, ‘যখন ফুটবল খেলতে শুরু করেছিলাম, আমি কোনো রেকর্ড ভাঙার কথা চিন্তা করিনি। আর আজ (মঙ্গলবার) পেলের যে রেকর্ডটা নিজের করে নিলাম, সে অর্জন তো অনেক দূরের কথা।

পেলে বলছেন, তার এবং মেসির মতো একই ক্লাবে দীর্ঘদিন থাকার উদাহরণ তিনি কমই দেখেছেন, মেসির প্রতি শ্রদ্ধা এবং সম্মান জানাচ্ছি। ওর আর আমার মতো দীর্ঘদিন একই ক্লাবকে ভালোবেসে থেকে যাওয়ার নজির খুব কম আছে।