ইরানে নারী রেফারিকে সেন্সর করে দেখানো হলো

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ বর্তমানে সারা বিশ্বের একাট অত্যন্ত জনপ্রিয় ফুটবল আসর। আর গত কয়েক বছরে এশিয়া কিংবা মধ্যপ্রাচ্যে এই জনপ্রিয়তা অন্য মাত্রা নিয়েছে। বর্তমানে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ সহ ইউরোপের কয়েকটি বড় লিগেই এখন নারী রেফারি দিয়ে ম্যাচ পরিচালিত হয়। গত সপ্তাহে লিগের ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আর টটেনহাম হটস্পারের ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করার সময় টেলিভিশন সম্প্রচারে ব্যাঘাত ঘটায় ইরান।

আর এ ব্যঘাত ঘটানোর কারন ছিল নারী রেফারি। নারী রেফারিকে বারবার সেন্সর করা হচ্ছিল গত সপ্তাহে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহাম ম্যাচ সম্প্রচারের সময়। এ ব্যাপারটা মেনে নিতে না পেরে ইরানের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন কুস্তিগির সর্দার পাশাই টুইটারে এক টুইট বার্তায় লেখেন , ‘গত রাতে ইরানের টিভি চ্যানেলটি কেবল ম্যাচে নারী রেফারি থাকার কারণে বেশ অনেকবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহামের ম্যাচটি সেন্সর করে। লিঙ্গের ভিত্তিতে এই বিভক্তিকরণের বিরুদ্ধে ফিফা কি কোনো প্রতিবাদ জানাবে না?’ এমন পরিস্থিতিতে ইরানের এই ঘটনা প্রমাণ করে যে পরিবর্তন আসতে এখনো অনেকটা পথ হাঁটা বাকি।