আইসোলেশনে ভারতের ৫ ক্রিকেটার

    একটি ভিডিও প্রকাশের পর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কোভিড প্রটোকল ভাঙার অভিযোগ উঠেছে  ভারতীয় পাঁচ  ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে। হোটেলে খেতে যাওয়ায় রোহিত শর্মা, রিশাব পান্ত, শুবমান গিল, পৃথ্বী শ ও নবদিপ সাইনিকে রাখা হয়েছে আইসোলেশনে। হোটেলে খাওয়ার পর ভারতের ৫ ক্রিকেটার আইসোলেশনের পাঠানো হয় ।নতুন বছরের শুরুর দিন উপলক্ষে মেলবোর্নের একটি হোটেলে  খেতে গিয়েছিলেন রোহিত-পান্তরা। সেটির একটি ভিডিও সামাজিক গণমাধ্যমে  ভাইরাল হয়।
রোহিত শর্মাদের এমন বিপদে ফেলেছেন নাভালদীপ সিং নামের এক ভক্ত। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী জানানো হয়েছে,  অস্ট্রেলিয়ার একটি হোটেলে রোহিতদের খাওয়ার বিল  সেই ভক্ত না জানিয়েই পরিশোধ করে তাঁদের চমকে দিয়েছেন । এরপর নাভালদীপ নামের সেই ভক্ত আবার টুইটারে ক্রিকেটারদের একসঙ্গে খাওয়ার একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন । ক্যাপশনে লিখেছেন , প্রিয় তারকাদের না জানিয়েই বিলটা পরিশোধ করে  দিয়েছেন তিনি।শুক্রবার রোহিতদের বিল পরিশোধ করা ও পরে পান্তকে জড়িয়ে ধরার কথাও বলেন ওই ব্যক্তি। পরের দিন অবশ্য বক্তব্য বদলে জানান, ক্রিকেটাররা ঠিকই  দূরত্ব বজায়ই রেখেছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে আনা এমন  জৈব সুরক্ষা বলয়ের প্রটোকল ভাঙার অভিযোগের ব্যাপারটা তদন্ত করছে দেশ দুইটির ক্রিকেট বোর্ড। গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে নিজেদের ওয়েবসাইটে  পাঁচ ভারতীয় ক্রিকেটারদের আইসোলেশনে পাঠানোর খবরটি জানিয়েছে সিএ। বিবৃতিতে জানানো  হয়েছে, দুই দেশের বোর্ড সেই  বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে রোহিতরা বায়ো-বাবল ভেঙেছেন কি না।
     ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এক বিবৃতিতে  জানিয়েছে যে, ‘আমরা ইতিমধ্যেই ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার চিকিৎসক দলের পরামর্শে  সতর্কতা হিসেবে  খেলোয়াড়দের আইসোলেশনে পাঠিয়েছি। এই খেলোয়াড়দের বাকি দলের থেকে আলাদা রাখা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া জানায়, আইসোলেশনে থাকার সময় অনুশীলন করতে পারবেন ক্রিকেটাররা। তবে স্কোয়াডের সঙ্গে নয়, তাদের ভেন্যুতে যেতে হবে আলাদা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কঠোর জৈব সুরক্ষা বিধি অনুযায়ী ক্রিকেটাররা কোনো হোটেল বা রেস্তোরাঁর ভেতরে খেতে পারবেন না। তাদের খেতে হবে উন্মুক্ত স্থানে।
      গত বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে সিরিজ চলাকালে জৈব-সুরক্ষা বলয় ভেঙে বাড়িতে যাওয়ার অভিযোগে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছিল ইংল্যান্ডের পেসার জফ্রা আর্চারকে। এখন রোহিতদের ব্যাপারে কি হবে সেটা তদন্ত শেষ হলেই  জানানো হবে বলে জানিয়েছেন তারা । আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার তৃতীয় টেস্ট।