অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের 30 ভাগ স্মিথের ও 30 ভাগ ওয়ার্নারের

    ৩৬ রানের দুঃস্বপ্নের পর অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারতকে নিয়ে সুখস্বপ্ন দেখার লোক খুব একটা নেই বললেই চলে । তবে ব্যতিক্রমীদের ছোট্ট দলে আছেন কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত। ভারতের সাবেক এই ব্যাটসম্যান ও একসময়কার প্রধান নির্বাচকের মতে, অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইন আপ খুব ভালো নয়।  অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং দারুণ কিছু নয়। আমার বিশ্বাস, অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের শতকরা ৩০ ভাগই ডেভিড ওয়ার্নার, আরও ৩০ ভাগ স্টিভেন স্মিথ। অন্যরা মিলে বাকি অংশ। তাদের বোলিং দারুণ। কিন্তু ব্যাটিং খুব শক্তিশালী নয়। ভারত সেটা কাজে লাগাতে পারে।
     চোটের কারণে প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়া পায়নি ওয়ার্নারকে। বাঁহাতি এই ওপেনার  দ্বিতীয় টেস্টেও থাকছেন না। সিরিজের প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের দুর্বলতা স্পষ্ট হয় যথেষ্টই। প্রথম ইনিংসে ভারত ২৪৪ রান করেও লিড পেয়ে যায় ৫৩ রানের। দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার বোলাররা ভারতকে ৩৬ রানে গুটিয়ে দিয়ে পাল্টে দেয় পাশার দান। তবে এত কম রানে অলআউটের ঘটনা তো আর রোজ ঘটবে না। দা এইজ ও দা হেরাল্ডের সঙ্গে কথোপকথনে শ্রীকান্ত বললেন, অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের ঘাটতি ভারতের কাজে লাগাতে উচিত।
   বিরাট কোহলি ও মোহাম্মদ শামির অনুপস্থিতিতে ভারতের ঘুরে দাঁড়ানো সহজ হবে না, মানছেন শ্রীকান্ত। তবে সাবেক এই অধিনায়কের বিশ্বাস, ভারত হাল ছাড়বে না ।  তিনি বলেন আমার মনে হয়, আমাদের দলের মানসিকতা (প্রথম টেস্টে) অতি রক্ষণাত্মক ছিল। ওদেরকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। আরেকটু ইতিবাচক মানসিকতা মেলে ধরতে হবে। এটাই লড়াইয়ের সেরা পথ। সত্যি বলতে এতে কোন সন্দেহ নেই , কিং কোহলি ও শামিকে ছাড়া কাজটা অনেক কঠিন হবে।
    তবে আমি নিশ্চিত, ওরা মাঠে নেমে লড়াই করবে। ভারতে সবাই হতাশ অবশ্যই। তবে সবাইকে ব্যাপারটি এভাবে নিতে হবে যেন এটা ছিল একটা দুঃস্বপ্ন। বক্সিং ডে টেস্টে মেলবোর্নে মুখোমুখি হবে দুই দল।  ভারতের ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই শুরু হবে  শনিবার।